ডেস্ক নিউজ ॥ ঢাকার গুলশানের হোলি আর্টিজান বেকারিতে হামলার আগে জঙ্গিরা যে ফ্ল্যাটে একত্রিত হয়েছিলো সেটি চিহ্নিত করে তার মালিকসহ আরও দুজনকে গ্রেফতারের দাবি করছে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিট।

আটককৃতরা হলেন ফ্ল্যাটটির মালিক নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপ-উপাচার্য গিয়াস উদ্দিন আহসান, তার ভাগ্নে আলম চৌধুরী ও ভবনের ব্যবস্থাপক মাহবুবুর রহমান।

ডিএমপির মুখপাত্র মাসুদুর রহমান রাতে বিবিসি সংবাদদাতা মীর সাব্বিরকে বলেন বাসাটিতে অভিযান চালিয়ে বালু ভর্তি কার্টন ও জঙ্গিদের পরিধেয় জামা কাপড় জব্দ করেছে পুলিশ।

পুলিশের ধারণা বালু ভর্তি কার্টন গ্রেনেড রাখার জন্য ব্যবহৃত হচ্ছিলো।

মিস্টার রহমান বলছেন পুলিশের নির্দেশনা থাকা সত্ত্বেও বাসাটি ভাড়া দেয়ার সময় ভাড়াটিয়াদের তথ্য ও ছবি রাখা হয়নি সে কারণে তাদের ওই তিনজনকে আটক করা হয়েছে।

তিনি বলেন, “এখন তদন্তে দেখা যাবে তাদের সাথে জঙ্গিদের যোগসাজশ ছিল কি-না”।

পুলিশের কাছে তথ্য অনুযায়ী হোলি আর্টিজান বেকারিতে হামলার আগে জঙ্গিরা ওই বাড়িতেই অবস্থান করছিলো।

হামলার পরে জঙ্গিদের অন্য সহযোগীরা দ্রুত সেখান থেকে সটকে পড়ে।