সরকারি চাকরিজীবীদের বহুল প্রতীক্ষিত অষ্টম বেতন স্কেলের গেজেট প্রকাশ হয়েছে। মঙ্গলবার রাত সোয়া ৮টার দিকে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বেতন স্কেলের গেজেটের মোড়ক উন্মোচন করেন। অষ্টম বেতন স্কেলের গেজেট প্রকাশকে অর্থমন্ত্রী সরকারি চাকারিজীবীদের জন্য বিজয় দিবসের বিশেষ উপহার হিসেবে উল্লেখ করেছেন। এর আগে অষ্টম বেতন স্কেলের গেজেটের চূড়ান্ত কপি অর্থমন্ত্রী মুহিতের হাতে হস্তান্তর করেন অর্থমন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়ন বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মোহাম্মদ আলী খান। এরপর অর্থমন্ত্রী গেজেটের মোড়ক উন্মোচন করেন।নতুন পে-স্কেলের গেজেট প্রকাশের মধ্য দিয়ে সরকারি চাকরিজীবীদের নতুন অধ্যায়ের সূচনা হলো।অষ্টম বেতন কাঠামো ঘোষণার পর তা বাস্তবায়নে স্বার্থান্বেষী একটি মহল তাদের স্বার্থে নানা অজুহাতে বেতন কাঠামোর আদেশ জারিতে বিলম্ব করতে থাকে। এ অবস্থায় চাকরিজীবীরা প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীর কঠোর হস্তক্ষেপ দাবি করেন। photo-1450190284সুত্র জানায়, ড. ফরাস উদ্দিনের নেতেৃত্বে গঠিত অষ্টম পে-কমিশন টাইমস্কেল ও সিলেকশন গ্রেড তুলে দেওয়ার সুপারিশ করে। একই সঙ্গে কমিশন সরকারি চাকরিজীবীদের বর্তমান ২০টি গ্রেড থেকে কমিয়ে ১৬টি গ্রেড করার সুপারিশ করে। কিন্তু সচিব কমিটি পে-কমিশনের বেশ কিছু সুপারিশে সংশোধন আনে। এর মধ্যে টাইমস্কেল ও সিলেকশন গ্রেড বাদ দেওয়ার সুপারিশ বহাল রাখলেও সচিব কমিটি পে-কমিশনের ১৬টি গ্রেডের সুপারিশের পরিবর্তে ২০টি গ্রেড বহাল রাখার সুপারিশ করে। চূড়ান্ত পর্যায়ে সেটাই বহাল রাখা হয়।সূত্র জানায়, পে-কমিশন ও সচিব কমিটির সুপারিশের পরও কর্মকর্তা-কর্মচারিসহ বিভিন্ন পেশাভিত্তিক সংগঠন টাইমস্কেল ও সিলেকশন গ্রেড বহাল রাখাসহ নানা ধরনের দাবি তুলে ধরে। বিশেষ করে সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক, ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের সংগঠনগুলো বিভিন্ন দাবি তুলে ধরে। এরই ধারাবহিকতায় অর্থমন্ত্রীকে প্রধান করে গত ১৫ সেপ্টেম্বর বেতন বৈষম্য দূরীকরণ সংক্রান্ত সাত সদস্যের মন্ত্রিসভা কমিটি গঠন