জমি সংক্রান্ত বিরোধে তাড়াশে ভাইয়ের হাতে ভাইকে হত্যা মামলা তুলে নিতে বাদীকে হুমকি

আশরাফুল ইসলাম রনি, তাড়াশ(সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি :সিরাজগঞ্জের তাড়াশে বসতবাড়ির সীমানা নিয়ে বিরোধের জের ধরে বড় ভাইয়ের হাতে ছোট ভাইকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় মামলা তুলে নিতে বাদীকে আসামীপক্ষের লোকজনদের প্রতিনিয়তি হুমকি অব্যহত। আর বিষয়ে তাড়াশ থানায় একটি সাধারন ডায়েরী (জিডি নং-৮৬৩/২৪-৪-১৬) করেছেন নিহতের স্ত্রী মনোয়ারা খাতুন। ঘটনাটি ঘটেছে, উপজেলার নওগা ইউনিয়নের মহিষলুটি গ্রামে।

অভিযোগ সুত্রে জানাগেছে, মামলার বাদী ও নিহত রহমত আলীর স্ত্রী মনোয়ারা খাতুন শনিবার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোট দেয়ার জন্য বাড়ি পাশের দেবীপুর মাদ্রাসা কেন্দ্রে যায়। ভোট দিয়ে তিনি ও তার মাকে সঙ্গে নিয়ে মহিষলুটি স্বামীর বাড়ি ফেরার পর বাড়ির সামনে আসামী নুর ইসলাম এবং তার ২ ছেলে হাসান আলী ও হাসমত আলীর পক্ষের আতœীয় মজিবর সরদার, নাসির উদ্দিন (২৫), মোহাম্মাদ আলী (৪০), সাইফুল ইসলাম (৫০), দরদ আলী (৫০), গফুর আলী (৫০)সহ ১২ জন সংঘবদ্ধ হয়ে পথ আটকিয়ে স্বামী হত্যার মামলা তুলে নিতে হুমকি দেয়। এ সময় মামলা তুলে নিতে অস্বীকৃতি জানালে তারা তার স্বামীর মত করে মেরে ফেলবে ও সন্তানদেরকে হত্যা করবে বলে ভয়ভীতি দেখায়। পরে রবিবার এবিষয়ে তাড়াশ থানায় একটি সাধারণ করেন।

এদিকে মামলা দায়েরের প্রায় ২মাস অতিক্রম হলেও রহস্যজনক কারনে তদন্তকারী কর্মকর্তা তাড়াশ থানার উপ-পরিদশর্ক নিয়ামুল হক হত্যার মূল আসামীকে এখনো গ্রেফতার করতে পারেনি।

বিষয়টি জানতে চাইলে তাড়াশ থানার উপ-পরিদর্শক ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নিয়ামূল হক বলেন, আসামী ধরার জন্য অভিযান অব্যহত রয়েছে । এছাড়া নির্বাচনের কারণে ব্যস্ত থাকায় মামলা-মোর্কদমা নিয়ে কোন কাজ করতে পারেনি। তবে এখন অভিযান চলবে ।

প্রসঙ্গত, গত ৪ই মার্চ শুক্রবার বসতবাড়ির জায়গা মাপ নিয়ে বিরোধের জের ধরে মহিষলুটি গ্রামের মজিবর রহমানের ছেলে নুর ইসলাম এবং তার ২ ছেলে হাসান আলী ও হাসমত আলী ধারালো হাসুয়া দিয়ে ছোট ভাই রহমত আলীকে কোপাতে থাকে। একপর্যায়ে ছোট ভাই ঘটনাস্থলেই মারা যায় ।#

Advertisment ad adsense adlogger