কুড়িগ্রামে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ

কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের গোড়াই রঘুরায় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে মহান বিজয় দিবস পালন না করাসহ নানা অনিয়মের অভিযোগে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন ঐ বিদ্যালয়ের সহসভাপতি মোঃ সামছুল হকসহ আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ দবির উদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ ওমর ফারুক মঙ্গা।

অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, গত ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস প্রতিটি বিদ্যালয়ে অনাড়ম্বর ও ভাবগাম্ভির্জের সহিত পালনের নির্দেশ থাকলেও গোড়াই রঘুরায় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ নেয়ামুল হক কোন কার্যক্রম গ্রহন করেন নাই। বিদ্যালয়ের এসএমসি কমিটি, স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তি ও বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদেরকে দিবসটি উৎযাপনের কথা বলেন নাই। যা মহান বিজয় দিবসকে অবমাননার সামিল।

এ বিষয়ে স্থানীয়রা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার স্বপন কুমার রায় চৌধুরীর সাথে তৎক্ষনাত মোবাইল ফোনে যোগাযোগা করলে তিনি প্রধান শিক্ষকের সাথে কথা বলতে চান। কিন্তু প্রধান শিক্ষক জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের সাথে কথা বলতে অস্বীকৃতি জানান।

এছাড়াও উক্ত প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে যথাসময়ে বিদ্যালয়ে না আসা, উপবৃত্তি প্রদানে অনিয়ম, স্লিপের টাকা আত্মসাৎ, অতিরিক্ত পরীক্ষার ফি আদায়, মা সমাবেশ ও অবিভাবক সমাবেশ না করাসহ নানা অভিযোগ এনে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস বরাবর অভিযোগপত্র দায়ের করেন।

অভিযোগের বিষয়টি সরেজমিনে তদন্ত করতে গেলে স্থানীয় ৩জন সাংবাদিককে রুমের ভিতর রেখে তালাবন্ধ করে দেড় ঘন্টা আটকিয়ে রাখেন ঐ প্রধান শিক্ষক মোঃ নেয়ামুল হক।

বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা জানান, বিদ্যালয়ে মহান বিজয় দিবস পালনের কোন কথা শিক্ষকরা তাদের বলেন নাই। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ নেয়ামুল হক জানান, আমার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ ষঢ়যন্ত্র মুলক।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার স্বপন কুমার রায় চৌধুরী বলেন, অভিযোগকারী বিষয়টি সঙ্গে সঙ্গেই আমাকে মোবাইল ফোনে অবহিত করেছে। লিখিত অভিযোগও পেয়েছি। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত কমিটি করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারীতে ভুয়া ব্যক্তিদের মুক্তিযোদ্ধা করায় প্রতিবাদ সমাবেশ

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে মুক্তিযুদ্ধে অংশ গ্রহণ করেনি এমন ব্যক্তিদের টাকার বিনিময়ে মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করার প্রতিবাদে প্রতিবাদ সভা করেছে ভুরুঙ্গামারী উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ।

আজ শুত্রবার বেলা দুই ঘটিকায় ভূরুঙ্গামারী উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ মিলনায়তনে সাবেক উপজেলা কমান্ডার মহি উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে এই প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শামসুল আলম মতি, ডেপুটি কমান্ডার আলমগীর হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক জেল সুপার নূরুল ইসলাম, আব্দুল কাদের ও শাহজাহান আলী সাজু প্রমুখ।

প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন, চলতি বছরে ভুরুঙ্গামারী উপজেলায় ২৫৫ জনের যে তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে তার মধ্যে প্রায় দুইশতাধিক ব্যক্তিকে মুজিব নগর সরকারের কর্মচারী দেখানো হয়েছে। প্রকৃত পক্ষে ওই ব্যক্তিরা মুজিব নগর সরকারের কর্মচারী ছিলেন না। বক্তারা বলেন,কেদ্রীয় কমান্ডের সহসংগঠনিক ওসমান গনি নগদ টাকার বিনিময়ে মুক্তিযোদ্ধা নয় এমন ভুয়া ব্যক্তিদের মুক্তিযোদ্ধা হিসাবে তালিকা ভূক্ত করেন। তাদের নাম দ্রুত মুক্তিযোদ্ধা তালিকা থেকে বাদ দেয়ার দাবী জানান ।

2017-12-24T10:19:11+00:00December 24th, 2017|শিক্ষা ও সংস্কৃতি|
Advertisment ad adsense adlogger