দেশের উচ্চশিক্ষার প্রত্যাশিত মান নিশ্চিত ও উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে বিশ্বমানে উন্নীত করতে বেসরকারি এই খাতকে সরকার তদারকি করছে বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। তিনি বলেন, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো বাংলাদেশে উচ্চ শিক্ষায় নতুন মাত্রা যোগ করেছে। নতুন প্রজন্মকে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে দক্ষ করে তুলতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভুমিকা গুরুত্বপূর্ণ। তবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে জ্ঞানচর্চা ও নতুন জ্ঞান সৃষ্টির মাধ্যমে সমাজে ইতিবাচক পরিবর্তনে ভূমিকা রাখতে হবে। গতকাল (মঙ্গলবার) রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে স্ট্যামফোর্ড ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের ৩য় সমাবর্তন অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদের প্রতিনিধি হিসেবে সভাপতির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শিক্ষার গুণগতমান বৃদ্ধি করা বর্তমান সরকারের অন্যতম লক্ষ্য। আদর্শ জাতি গঠনে নৈতিক শিক্ষা খুবই জরুরী। এজন্য স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের নৈতিক মূল্যবোধ ও সমাজের প্রতি দায়বদ্ধতা থেকে অর্জিত জ্ঞান কাজে লাগিয়ে গবেষণার মাধ্যমে নতুন তথ্য ও প্রযুক্তি উদ্ভাবন করার আহবান জানান নাহিদ। সমাবর্তন অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর আবদুল মান্নান, স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান ফাতিনাজ ফিরোজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর মো. আলী নকী এবং এসোসিয়েশন অব প্রাইভেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ এর নির্বাহী কমিটির সদস্য একেএম এনামুল হক শামীম বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে সমাবর্তন বক্তা ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি প্রফেসর ড. এ কে আজাদ চৌধুরী। সমাবর্তনে এক হাজার ৭৭২ জন শিক্ষার্থীকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রী প্রদান করা হয়। শিক্ষামন্ত্রী ৫ জন কৃতী শিক্ষার্থীকে চ্যান্সেলর স্বর্ণপদক এবং ১৯ জনকে ভিসি স্বর্ণপদক বিতরণ করেন। এদের মধ্যে দৈনিক ইনকিলাবের বিশেষ সংবাদদাতা ও সাবেক চীফ রিপোর্টার মোহাম্মদ নূরুল ইসলামকে সাংবাদিকতা বিভাগে মাস্টার্সে সর্বোচ্চ নম্বরের কৃতিত্ব অর্জনের জন্য ভাইস চ্যান্সেলর গোল্ড মেডেল প্রদান করা হয়।