যাদের কাছে থেকে শিক্ষা নিয়ে মানুষ হতে হয়, সেই মানুষ গড়ার কারিগর শিক্ষকদের ফাঁসির দাবিতে রাস্তায় নেমেছে শিক্ষার্থীরা। কতুটুকু হয়রানি হলে একজন ছাত্রী শিক্ষকের বিরুদ্ধে ফাঁসির দাবি তুলে তুলতে পারে? এমনই এক প্রশ্ন নাড়া দিয়েছে এলাকায়। সোহরাভ স্যার, মিন্টু স্যার, সাদিক স্যারের ফাঁসি চাই এ ধরনের বিভিন্ন শ্লোগানের প্ল্যাকার্ড নিয়ে মেহেরপুর প্রেসক্লাব প্রাঙ্গনে মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করে শিক্ষার্থীরা। গতকাল রবিবার বেলা সাড়ে ১১টায় শুরু হয়ে ঘন্টাব্যাপী অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে প্রায় বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সহ¯্রাধীক ছাত্র ছাত্রী অংশগ্রহণ করে।সহকারী শিক্ষক সোহরাভ হোসেন, মিন্টু মিয়া, তাদের সহযোগী একই বিদ্যালয়ের দারোয়ান আকবর আলী ও চপল এই ৫ জনের বিরুদ্ধে ছাত্রীদের যৌন হরয়ানির প্রতিবাদে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি বারিকুল ইসলাম লিজনের নেতৃত্বে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয় । মানববন্ধনে অন্যান্যদের মধ্যে শহর ছাত্রলীগের সভাপতি মাহফিজুর রহমান পোলেন, কলেজ শাখার সভাপতি তোহিদুল ইসলাম সাধারণ সম্পাদক কুদরত ই খুদা রুবেল, সদর উপজেলা সভাপতি জুনায়েদ ইমতিয়াজ জুলফিকার, রাশেদুল ইসলাম আনন্দ, রিংকু মাহমুদ, মানিক, শিমেন, রুমি, সুইট, হিলন, পলাশ, স্বাধীন,সাদ্দাম, ফিরোজ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ছাত্রীদের দূর্বলতার সুযোগ নিয়ে স্থানীয় কিছু প্রভাবশালীর ছত্রছায়ায় ওই শিক্ষকরা বিভিন্ন ভাবে ছাত্রীদের যৌন হয়রানি করে আসছে। অনতিবিলম্বে এই সিন্ডিকেট ভাঙ্গতে হবে এবং অভিযুক্ত শিক্ষকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন না করলে ভবিষ্যতে কঠোর কর্মসুচি দেওয়ার ঘোষনা দেন তারা মানববন্ধন শেষে তারা জেলা প্রশাসকের কাছে একটি স্মারকলিপি প্রদান করে।