পশ্চিমবঙ্গে কতগুলো হলে মুক্তি পেয়েছে ‘বস ২’?

আমি যতটুকু জানতে পেরেছি, পশ্চিমবঙ্গজুড়ে প্রায় ৭০টি হলে মুক্তি পেয়েছে বস ২। মুক্তির দুই দিন আগে থেকেই ছবির প্রচারণার জন্য কলকাতায় ছিলাম।

কলকাতায় কেমন সাড়া?

ছবিটি নিয়ে ওখানকার দর্শকের বেশ আগ্রহ আগে থেকেই। মুক্তির আগের দিন প্রিমিয়ার শোতেও ভালো সাড়া পেয়েছি। ওই দিন ছবিটি দেখতে বড় বড় পরিচালক, প্রযোজক, চলচ্চিত্রসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা অনেকেই উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া বহু গণমাধ্যমকর্মীও ছিলেন। প্রশংসা করে অনেকেই বলেছেন, অনেক দিন টালিউডে এ ধরনের বাংলা ছবি তাঁরা দেখেননি। জানতে পেরেছি, মুক্তির প্রথম দিন প্রায় ৮০ শতাংশ প্রেক্ষাগৃহে দর্শক পরিপূর্ণ ছিল। কলকাতার স্বনামধন্য অনেক অভিনয়শিল্পীই ছবিটি দেখে টুইটারে আমাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

ঈদের দিন কোন কোন হলে ছবিটি দেখতে যাবেন?

এখনই বলতে পারছি না ঈদের দিন ছবিটি দেখতে কোথাও যাওয়া হবে কি না। এ ব্যাপারে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শিডিউল তৈরি করে। তারা এখনো কিছুই জানায়নি।

প্রথমে ছবির ‘আল্লাহ মেহেরবান’ গানটি নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়। পরে পুরো ছবিটিরই মুক্তিতে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছিল। এসব কারণে ছবিটি নিয়ে আপনার উচ্ছ্বাসে কোনো ভাটা পড়েছে কি?

না, একেবারই ভাটা পড়েনি। শুরু থেকেই আমার আত্মবিশ্বাস ছিল, ছবিটির মুক্তি আটকাবে না। কেননা, যৌথ প্রযোজনার সব নিয়ম মেনেই এটি তৈরি করা হয়েছে। তবে ‘আল্লাহ মেহেরবান’ গানটি নিয়ে বাংলাদেশের দর্শকের সঙ্গে একটু ভুল-বোঝাবুঝি হয়েছিল। অবশ্যই এক সপ্তাহের মাথায় গানের কথা পরিবর্তন করে নতুন করে গানটি মুক্তি দেওয়া হয়েছে। এখন আর কোনো সমস্যা নেই।

গত বছর ঈদে মুক্তি পাওয়া একই জুটির ছবি ‘বাদশা’ আর এবারের ‘বস ২’-এর মধ্য কোনটিকে এগিয়ে রাখবেন?

বলা মুশকিল। কেননা, দুটি দুই ধাঁচের ছবি। একই ধাঁচের ছবি হলে পার্থক্যের তুলনা করা যেত। দুটি ছবিরই গল্প শক্তিশালী। বড় বাজেটে, বড় আয়োজনে করা। তবে আমি শতভাগ প্রস্তুত হয়ে বস ২ করেছি।

বাংলাদেশ টেলিভিশনে ঈদের ‘আনন্দমেলা’ অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন। কেমন লাগল?

বাংলাদেশ টেলিভিশনের ঈদের সবচেয়ে জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘আনন্দমেলা’। এই প্রথম আনন্দমেলা অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছি, ভালো লেগেছে। ঈদের দিন এটি প্রচারিত হবে। অনুষ্ঠানটি দেখার ইচ্ছা আছে।