হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত বাংলাদেশী চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় নায়ক রিয়াজ এখন ভালো আছেন। তাঁর শারীরিক অবস্থা ক্রমশ উন্নতির দিকে। তবে তাঁকে আরও দু-এক দিন হাসপাতালে থাকতে হবে। জানালেন তাঁরা চিকিৎসক শাহাবুদ্দীন তালুকদার। অ্যাপোলো হাসপাতালের কার্ডিওলজি বিভাগের পরামর্শক শাহাবুদ্দীন তালুকদারের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন আছেন রিয়াজ। আজ মঙ্গলবার দুপুরে প্রথম আলোর সঙ্গে আলাপে শাহাবুদ্দীন তালুকদার বলেন, ‘রিয়াজ খুবই ভাগ্যবান মানুষ। ঘটনার খুব অল্প সময়ের মধ্যেই তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে আসা সম্ভব হয়। এরপর দ্রুত সব ধরনের পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে তাঁকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সেবা দেওয়া শুরু হয়। তাঁর হৃৎপিণ্ডে একটা রিং (স্টেন্ট ) লাগানো হয়েছে। খুব শিগগিরই আরেকটা রিং পরাতে হবে। তিনি এখন অনেকটাই শঙ্কামুক্ত।’ চিকিৎসক জানিয়েছেন, রিয়াজের হৃৎপিণ্ডে তিনটি ব্লক ধরা পড়েছে। রিয়াজ বর্তমানে অ্যাপোলো হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটে আছেন। শারীরিক অবস্থা বুঝে কাল বুধবার তাঁকে কেবিনে নেওয়া হতে পারে বলেও জানান চিকিৎসক শাহাবুদ্দীন তালুকদার। এদিকে রিং পরানোর পর গতকাল রাতেই রিয়াজ কথা বলেছেন তাঁর মা, স্ত্রী এবং কয়েকজন ঘনিষ্ঠ মানুষের সঙ্গে। আদর করেছেন তাঁর পাঁচ মাস বয়সী শিশু সন্তান আমেরাকেও। গতকাল রোববার রাত সাড়ে আটটার দিকে উত্তরার হৈচৈ শুটিংবাড়িতে কৃষ্ণপক্ষ চলচ্চিত্রের কাজ করার সময় হার্ট অ্যাটাক হয় রিয়াজের। এ সময় সেখানে ছিলেন রিয়াজের বন্ধু ও সহশিল্পী চিত্রনায়ক ফেরদৌস, নির্মাতা মেহের আফরোজ শাওনসহ অনেকেই। হার্ট অ্যাটাকের ব্যাপারটি টের পেয়ে দ্রুত রিয়াজকে উত্তরার একটি স্থানীয় ক্লিনিকে নিয়ে যাওয়া হয়। শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে সেখান থেকে দ্রুত অ্যাপোলো হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।