আজকের ডিজিটাল যুগে যুবক-যুবতী, বুড়া-বুড়ি সবারই ঘুম হারাম করে দিয়েছে টাক মাথা। কিন্তু আর নয় ভাবনা। অত্যাধুনিক পিআরপি থেরাপি নিয়ে এসেছে এক বিস্ময়। টাক মাথায় চুল গজাতে এইটি এক অভাবনীয় সাফল্য এনেছে। এক গাদা টাকা খরচে হেয়ার-ট্রান্সপ্লান্টেশনের প্রয়োজন আর নেই। পিআরপি কি? এটি প্লাটেলেট সমৃদ্ধ প্লাজমা। রোগীর দেহ থেকে সিরিঞ্জ দিয়ে সামান্য রক্ত সংগ্রহ করে বিশেষ জেল ও ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ কয়েকটি টিউবে রাখা হয়। টিউবগুলো সেন্ট্রিফিউজ মেশিনে বসিয়ে বিশেষ প্রক্রিয়ায় প্লাটেলেট সমৃদ্ধ প্লাজমা সংগ্রহ করা হয়। টিউবের উপরের অংশে আলাদা হয়ে থাকা প্লাটেলেট সমৃদ্ধ প্লাজমা একটি বিশেষ পদ্ধতিতে টাক মাথায় প্রয়োগ করা হয়। যা ১-৩ মাসের মধ্যে রোগীর টাক মাথায় চুল গজাতে সাহায্য করে। পিআরপি কিভাবে কাজ করে? প্লাটেলেট সমৃদ্ধ প্লাজমায় থাকে অনেক পুষ্টিকর উপাদানের সমাহার। যেমন- পিডিজিএফ, টিজিএফ, ডিইজিএফ, আইজিএফ, এফজি এবং টিএসফি-ওয়ান ইত্যাদি। যার রোগীর হেয়ার ফলিকল এবং আশপাশের মাইক্রোসেলগুলোকে বিশেষ করে হেয়ার গ্রোথ সেল এবং স্টেমসেলগুলোকে স্টিমুলেট করে টাক মাথায় চুল গজাতে সাহায্য করে। সুবিধা : ১। সহনীয় পদ্ধতি ২। সহজে করা যায় ৩। ফলাফল খুবই ভাল ৪। নিরাপদ ৫। নন-এ্যালার্জিক ৬। পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া নেই ৭। খরচ কম ৮। প্রায় শতভাগ সফল। অসুবিধা : ১। সেন্ট্রিফিউজ মেশিন প্রয়োজন ২। সময় ব্যয় হয় ৩। বিশেষ ট্রেনিং প্রয়োজন। উপসংহার : পিআরপি থোরপি বর্তমানে টাক মাথায় চুল গজাতে এক যুগান্তকারী পদক্ষেপ। সারা দুনিয়ায় এটি এক নবজাগরণ সৃষ্টি করেছে। নারী-পুরুষ সবার জন্য এটি স্বল্প খরচে এক সহনীয় পদ্ধতি। ডাঃ একে এম মাহমুদুল হক খায়ের ত্বক, যৌন, সেক্স ও এ্যালার্জি বিশেষজ্ঞ এবং কসমেটিক সার্জন। সিনিয়র কনসালটেন্ট, বঙ্গবন্ধু মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় ফোন : ০১৬৭৮-৫৯২০৭১