উদ্ভিদভিত্তিক সব খাদ্যই সমান স্বাস্থ্যকর নয়!

সাধারণভাবে আমাদের ধারণা যে, উদ্ভিদভিত্তিক খাদ্য স্বাস্থ্যের জন্য সবচেয়ে উপকারী। কিন্তু বিশেষ কিছু উদ্ভিদভিত্তিক খাদ্য অন্যান্য উদ্ভিদভিত্তিক খাদ্যের চেয়ে বেশি উপকারী। সম্প্রতি নতুন একটি গবেষণায় এমনটাই প্রমাণিত হয়েছে।

এর আগের বেশির ভাগ গবেষণায়ই উদ্ভিদভিত্তিক খাদ্যের স্বাস্থ্যগত উপকারিতা খতিয়ে দেখা হয়েছে। সে সব গবেষণায় এবং বর্তমান গবেষণায়ও সাধারণত কম মাংস খাওয়া এবং বেশি বেশি ফল, সবজি এবং দানাদার খাদ্যশস্য খাওয়ার অভ্যাস স্বাস্থ্যকর এবং হৃদরোগের ঝুঁকি কমায় বলে বলা হয়েছে।
কিন্তু নতুন এই গবেষণায় দেখা গেছে, মাংস কম খেয়েও যদি বেশি হারে পরিশোধিত কার্বোহাইড্রেটস খাওয়া হয় এবং চিনিযুক্ত পানীয় পান করা হয় তাহলে উল্টো ফল আসতে পারে।

নতুন এই গবেষণাটি গতকাল ১৭ জুলাই জার্নাল অফ দ্য আমেরিকান কলেজ কার্ডিওলজিতে প্রকাশিত হয়। গত প্রায় তিন দশক ধরে পরিচালিত এই গবেষণায় গবেষকরা উদ্ভিদভিত্তিক খাদ্যের সম্ভাব্য তিনটি সংস্করণ তৈরি করেন। এবং প্রতি সংস্করণের খাদ্য লোকের স্বাস্থ্যের ওপর কী প্রভাব ফেলে তা পর্যবেক্ষণ করেন।

প্রথম সংস্করণে প্রাণিজ খাবার বাদ দিয়ে যেকোনো ধরনের উদ্ভিদভিত্তিক খাদ্যকে তালিকাভুক্ত করা হয়। দ্বিতীয় সংস্করণে শুধু স্বাস্থ্যকর উদ্ভিদভিত্তিক খাদ্য যেমন, পূর্ণ খাদ্য শস্য, ফল ও সবজি রাখা হয়। আর তৃতীয় সংস্করণে অস্বাস্থ্যকর উদ্ভিদভিত্তিক খাদ্য যেমন, পরিশোধিত কার্বোহাইড্রেটস, আলু এবং চিনিজাতীয় পানীয় অন্তুর্ভুক্ত করা হয়।

এই গবেষণায় গবেষকরা ১ লাখ ৬৬ হাজার নারীর তথ্য বিশ্লেষণ করা হয়। যারা যুক্তরাষ্ট্রের নার্সেস হেলথ স্টাডি এবং নার্সেস হেলথ স্টাডি টু-তে অংশগ্রহণ করেছেন। আর হেলথ প্রফেশনাল ফলোআপ স্টাডি থেকে ৪৩ হাজার পুরুষের তথ্য সংগ্রহ করা হয়।

এই তিনটি গবেষণাই ছিল দীর্ঘমেয়াদি। এবং এগুলোর মাধ্যমে লোকের স্বাস্থ্য, খাদ্যাভ্যাস এবং জীবনযাত্রার ধরনের তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করা হয়। এসব তথ্য-উপাত্তের ভিত্তি করে পরিচালিত নতুন এই গবেষণার নেতৃত্বে ছিলেন হার্ভার্ড স্কুল অফ পাবলিক হেলথের পোস্ট ডক্টরাল ফেলো আম্বিকা সাতিজা।

২৮ বছর ধরে পরিচালিত ওই পর্যবেক্ষণের সময়কালে ওই নারী-পুরুষদের ৮৬০০ জনেরও বেশি মানুষ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছেন।

গবেষণায় দেখা গেছে যারা সাধারণভাবে সব ধরনের উদ্ভিদভিত্তিক খাদ্যই খায় তাদের মধ্যে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা ৮% কম থাকে।

আর যারা শুধু স্বাস্থ্যকর উদ্ভিদভিত্তিক খাবার খায় তাদের মধ্যে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি ২৫% কম থাকে।

অন্যদিকে, যারা শুধু অস্বাস্থ্যকর উদ্ভিদভিত্তিক খাদ্য গ্রহণ করেন তাদের মধ্যে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি ৩২% বেশি থাকে।

এই গবেষণা থেকে প্রমাণিত হয়, শুধু স্বাস্থ্যকর উদ্ভিদভিত্তিক খাদ্য যেমন, পূর্ণ শস্য, ফল, সবজি এবং বাদাম এই জাতীয় খাদ্য খেলেই চলবে না বরং অস্বাস্থ্যকর উদ্ভিদভিত্তিক খাদ্য যেমন, মিষ্টি, পরিশোধিত কার্বোহাইড্রেটস এবং চিনিযুক্ত পানীয়ও ত্যাগ করতে হবে।

2019-01-14T12:30:43+00:00January 14th, 2019|স্বাস্থ্য|
Advertisment ad adsense adlogger