বিশেষ প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়া সদর উপজেলার পাটিকাবাড়ী ইউনিয়নের অন্তর্গত খেজুরতলা গ্রামের জন সাধারনের চলাচলের একমাত্র মাটির রাস্তাটি দীর্ঘদিন ধরে বেহাল দশা। একটু বৃষ্টি হলেই রাস্তাটি হাটু কাঁদা-পানিতে তলিয়ে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ে। সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, খেজুরতলা জামে মসজিদ হতে নওদাপাড়া ব্রীজ তথা কুষ্টিয়া চুয়াডাঙ্গা সড়ক পর্যন্ত মাত্র এক কিলোমিটার কাচা থাকায় এই এলাকার মানুষেরা বর্ষা মৌসুমের প্রায় ছয় মাস চরম ভোগান্তির মধ্যে চলাফেরা করে। এলাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়, আমাদের এই রাস্তার কপালে আজ পর্যন্ত এক ঝুড়ি মাটিও জোটেনি ইট তো দুরের কথা। এ বছরের বেশ কয়েক বারের ভারী বর্ষনের ফলে মাটির রাস্তাটি ভেঙ্গে বিভিন্ন স্থানে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। গ্রামবাসীর রাতের বেলা তো দুরে থাক দিনের বেলায় যানবাহন তো দুরের কথা পায়ে হেটে প্রায় চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে একমাত্র যোগাযোগের রাস্তাটি । গ্রামের এক বৃদ্ধা দীর্ঘশ্বাস ফেলে এই প্রতিবেদককে বলেন, বছরের পর বছর, যুগের পর যুগ চেয়ারম্যান মেম্বারের পরিবর্তন হলেও আমাগের এই রাস্তার কোন পরিবর্তন হইনি। কষ্ট করে কাঁদা মাটির রাস্তায় জীবন যাপন করছি আর অপেক্ষা করছি, কখনও কি এ কষ্টের অবসান হবে? নবনির্বাচিত ৩নং ইউপি সদস্য ইব্রাহীম খান বলেন, আমি ইতি মধ্যে এই রাস্তার বেহালদশার কথা মৌখিক ভাবে চেয়ারম্যান সাহেবকে বলেছি। ভুক্তভুগিরা বলেন, আমরা অনেকবার বিভিন্ন সময় পাটিকাবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের বিগত চেয়ারম্যান সহ বর্তমান চেয়ারম্যান সফর উদ্দিনের কাছে রাস্তার দুর্দশার কথা বলেছি, কিন্তুু কোন কাজ হয়নি। পাটিকাবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান সফর উদ্দিনের নিকট মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন, খুব শিঘ্রই ঐ রাস্তার নির্মান কাজ করা হবে। খেজুরতলা গ্রামবাসীর প্রাণের দাবী দীর্ঘদিনের অবহেলীত রাস্তাটি দ্রুত পাকা করনের।