বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবলে চ্যাম্পিয়ন উজানগ্রাম ও রানার্স আপ মনোহরদিয়া

কু্ষ্টিয়া সদর উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সার্বিক ব্যবস্থাপনায় বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবলের ফাইনাল খেলা ১৪ই সেপ্টেম্বর কু্ষ্টিয়া স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়েছে। গ্রাম বাংলার অনুর্ধ্ব ১৭ ফুটবল খেলোয়ারের প্রতিভা খুজে বের করার জন্য প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার উদ্যোগে সারা দেশ ব্যাপী আন্ত:ইউনিয়ন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ড কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুর্ধ্ব-১৭ খেলা গত ৪ই সেপ্টেম্বর কু্ষ্টিয়া স্টেডিয়ামে শুভ উদ্ধোধন হয়েছিলো। খেলাটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত দিন রাত পরিশ্রম করে, সদর উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারন সম্পাদক, জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাহী সদস্য ও শহর যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক মোহাম্মদ আলী নিশান এর সঞ্চালনায় সুষ্ঠু ভাবে শেষ হয়েছে। ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কু্ষ্টিয়া জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারন সম্পাদক অনুপ কুমার নন্দী। কু্ষ্টিয়া শহর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আতাউর রহমান আতা। সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জুবায়ের হোসেন চৌধুরী। সাংবাদিক রেজা আহাম্মেদ জয় কে তথ্য প্রদানের সময় নিশান বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তিনি মহান নেতা, এই মহান নেতা বেচে রবে চিরকাল, তাকে স্মরন করে খেলার আয়োজন করায় ক্রীড়া সংস্থাকে ধন্যবাদ জানায় এই যুবলীগ নেতা। সংবাদ সুত্রে জানা যায় ফাইনালে অংশ গ্রহন করেছিলো মনোহরদিয়া ইউনিয়ন ও উজানগ্রাম ইউনিয়ন। নির্ধারিত সময়ে দু দল ১-১ গোলে ম্যাচ ড্র করে। পরে ট্রাফিকারে ৪-২ গোলে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে উজানগ্রাম। খেলায় সর্বচ্চ গোলদাতা উজানগ্রামের আব্দুর রহমান ৪ গোল করে, শ্রেষ্ঠ খেলোয়ার মনোহরদিয়ার জুয়েল, ম্যান অব-দ্যা ফাইনাল আবু বক্কর সেরাদের সেরা হয়ে পুরুষ্কার পেয়েছে। খেলোয়ারদেরকে সার্বিক সহযোগীতায় ছিলেন যুবলীগ নেতা নুর আলম সিদ্দিকী মুক্তা। উজানগ্রাম ফুটবল দলের খেলায় নেতৃত্ব দেয় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আবু বক্কর সিদ্দিক। অন্য দিকে মনোহরদিয়ার খেলোয়ারদের নেতৃত্ব দেন, ইউনিয়ন চেয়ারম্যান জহিরুল ইসলাম জহুর ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি এছেম মালিথা, সাধারন সম্পাদক আব্দুল হামিদ। বক্তারা বলেন আজকের খেলোয়ার আগামী দিনের ভবিষ্যৎ, খেলায় পুরুষ্কার পাওয়া বড় বিষয় নয়, অংশ গ্রহন করাটা বড় কিছু। সরকার দেশের উন্নয়ন মুলক কাজের পাশাপাশি খেলোয়ারদের প্রতি বিশেষ নজর রেখেছে। গ্রাম থেকেও উঠে আসতে পারে ভালো খেলোয়ার সে লক্ষ্য দেশ ব্যাপী খেলার আয়োজন করেছে ক্রিড়া সংস্থা। সরেজমিনে দেখা গেছে ফাইনাল খেলা দেখতে দুর দুরান্ত থেকে ছুটে এসেছিলো খেলা প্রিয় মানুষ, খেলাটি উপোভোগ করতে গ্যালারীতে হাজার হাজার দর্শক কানায় কানায় পুর্ন ছিলো।
খেলা শেষে চ্যাম্পিয়ন ট্রফি হাতে পেয়ে উজানগ্রাম চ্যাম্পিয়ন দলের খেলোয়াররা ক্রিড়া সংস্থাকে ধন্যবাদ জানায়। রানার্স আপ মনোহরদিয়া দলের খেলোয়াররা বলে চেষ্টা করেছি, ভাগ্য না থাকায় চ্যাম্পিয়ন ট্রফি পায় নাই, আগামীতে আবারো এমন খেলার আয়োজনে অংশ গ্রহন করতে পারলে শেরা পুরুষ্কার জিতবে বলে জানায়।