ইবিতে খাবারের বকেয়া টাকা চাওয়ায় ডাইনিং ম্যানেজারকে মারধর, অভিযোগ ছাত্রলীগকর্মীর বিরুদ্ধে

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল’-এর ডাইনিং ম্যানেজার সুমনকে ইসালামী বিশ্ববিদ্যায় ছাত্রলীগ শাখার এক কর্মী মারধর করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঐ ছাত্রলীগ কর্মীর নাম শাহজালাল সোহাগ। সে ইসালামী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত এবং ইবির ‘দাওয়াহ অ্যান্ড ইসলামিক স্টাডিজ’ বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী ।

গতকাল শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে হলের ডাইনিংয়ে শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জুয়েল রানা হালিম গ্রুপের কর্মী শাহজালাল সোহাগের লোকজন ডাইনিং ম্যানেজার সুমনের ওপর ওই হামলা চালায়। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসাকেন্দ্রে সুমনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।

ভুক্তভোগী ও প্রত্যক্ষদর্শীর সূত্রে জানা যায়, ম্যানেজার সুমন হল ডাইনিংয়ের ফ্রিজে সংরক্ষণের উদ্দেশে কিছু মাংস রেখেছিলেন। পরবর্তী সময়ে তাঁর অনুপস্থিতিতে অনুমতি ছাড়াই কয়েক শিক্ষার্থী সেখান থেকে দেড় কেজি মাংস নিয়ে যান এবং ডাইংনিয়ে উপস্থিত এক কর্মচারীকে জানান, মাংস বাবদ টাকা পরে দেওয়া হবে। কিন্তু ডাইনিংকর্মী ওই শিক্ষার্থীদের কাউকে চিনতে পারেননি।

এদিকে বেশ কিছুদিন অতিবাহিত হয়ে গেলেও কেউ টাকা না দেওয়ায় ম্যানেজার ফ্রিজ থেকে মাংস নেওয়ার ব্যাপারে বিচ্ছিন্নভাবে শিক্ষার্থীদের কাছে জানতে চান। গতকাল রাতে ‘দাওয়াহ অ্যান্ড ইসলামিক স্টাডিজ’ বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী, ছাত্রলীগকর্মী শাহজালাল সোহাগ খাবারের জন্য ডাইনিংয়ে আসেন। তখন ম্যানেজার তাঁর কাছেও মাংসের প্রসঙ্গে জানতে চান। তাঁর রুমমেটরা কেউ মাংস নিয়েছেন কি না জানতে চান সুমন।

কিন্তু তাৎক্ষণিকভাবে কোনো উত্তর না দিয়ে ডাইনিং থেকে চলে যান সোহাগ। পরে তাঁর নেতত্বে আরো চার ছাত্রলীগকর্মী ডাইনিংয়ে গিয়ে অতর্কিতে সুমনের ওপর হামলা করে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে হল প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. তপন কুমার জোদ্দার বলেন, ‘আমি বিষয়টি শুক্রবার রাতেই শুনেছি। এর মধ্যে ডাইনিং ম্যানেজারের সাথে আমার বেশ কয়েকবার কথা হয়েছে । আমি তাকে বলেছি একটা লিখিত অভিযোগ দিতে। লিখিত অভিযোগ দিলে আমরা অবশ্যই বিষয়টি নিয়ে সকলের সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবো। এসময় অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন হলে টাকা ছাড়া কোন শিক্ষার্থী খাবার খেতে পারবে না। আর এসুযোগও ডাইনিং ম্যানেজার দিতে পারবে না। হলে সুষ্ঠু সুন্দর পরিবেশ ফেরাতে আমরা সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহন করবো বলেও তিনি জানান।

ইবি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জুয়েল রানা হালিম বলেন, ‘ঘটনাটি শুনেছি এবং সমাধানের চেষ্টা করছি।’

‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের আবাসকি শিক্ষার্থীরা ক্ষোভ প্রকাশ জানান, শুধু শাহজালাল সোহাগ নয়, ছাত্রলীগের পরিচয় দিয়ে হলের বেশকিছু আবাসিক ছাত্র হলের ডাইনিংয়ে প্রভার খাটিয়ে দিনের পর দিন বাকি খেয়ে টাকা না দেওয়ার কারনে এখানে কোন ডাইনিং ম্যানেজার থাকতে পারে না। ছাত্রলীগের নাম করে ডাইনিংয়ে বাকি খেয়ে পরে টাকা পরিশোধ না করার ফলে এর আগে অনেক ডাইনিং ম্যানেজার হলের দায়িত্ব ছেড়ে চলে গেছেন।

2019-01-19T15:13:49+00:00January 19th, 2019|স্থানীয় খবর|
Advertisment ad adsense adlogger