কুষ্টিয়াতে নিবন্ধন পরীক্ষা দিতে গিয়ে প্রধান শিক্ষক দ্বারা ধর্ষিত হয়েছেন বিদ্যালয়ের খন্ডকালীন খৃষ্টান ধর্মীয় শিক্ষিকা

lipi2

কুষ্টিয়া নিউজ ডেস্ক ॥ কুষ্টিয়াতে নিবন্ধন পরীক্ষা দিতে গিয়ে প্রধান শিক্ষকের দ্বারা ধর্ষিত হয়েছেন মুজিবনগর আম্রকানন  মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের খন্ডকালীন খৃষ্টান ধর্মীয় শিক্ষিকা। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার সকালের দিকে কুষ্টিয়ার একটি হোটেলে। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের জন্য পরীক্ষার্থী ঐ স্কুল শিক্ষিকা পরীক্ষা হলে না গিয়ে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। এদিকে ধর্ষক প্রধান শিক্ষক শরিফুল ইসলাম কুষ্টিয়া থেকেই পালিয়েছেন।
ধর্শিতার বাবা জানান, মেহেরপুর সরকারি মহিলা কলেজে সম্মান তৃতীয় বর্ষে পড়ার সময় মুজিবনগর আম্রকানন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে খন্ডকালীন ধর্মীয় শিক্ষক (খৃষ্টান) হিসেবে নিয়োগ লাভ করেন। পরবর্তীতে তিনি আনার্স শেষে মাষ্টার্স করেন। নিবন্ধন পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ ছাড়ায় ৩ বছর চাকরী করেন। চলতি বছরের শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় অংশ গ্রহনের জন্য বৃহস্পতিবার তার বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শরিফুল ইসলামের সাথে কুষ্টিয়া যান এবং সেখানে একটি হোটেলের আলাদা আলাদা রুমে রাত্রি যাপন করেন। সকালে পরীক্ষা অংশ নিতে যাওয়ার প্রস্তুতি গ্রহণকালে প্রধান শিক্ষক তার রুমে প্রবেশ করে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন। ওই সময় রক্তক্ষরণ হলে তিনি পরীক্ষা হলে না গিয়ে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। এদিকে লম্পট ওই ঘটনার পর হোটেল থেকে গাঢাকা দেন। বর্তমানে তিনি পলাতক রয়েছেন।
এদিকে আজ শনিবার দুপুরে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজে চিকিৎসা শেসে নিজ গ্রাম মুজিবনগরে ফেরেন ধর্শিতা । তিনি এসব ঘটনা তার স্বজনদের খুলে বলেন।

মুজিবনগর উপজেলার বাগোয়ান ইউপির ওয়ার্ড সদস্য ভবরপাড়া গ্রামের দিলীপ মন্ডল জানান, ধর্শিতার প্রধান শিক্ষক শরিফুল ইসলামকে আসামী করে একটি ধর্ষন মামলা করবেন বলে জানিয়েছে ধর্শিতার পরিবার। এছাড়া অসূস্থ্য লিপি মন্ডল আরো চিকিৎসার জন্য পুনরায় হাসপাতালে ভর্তি করবেন। তিনি আরো জানান- এঘটনা মুজিবনগর থানা পুলিশে জানানো হয়েছে। মুজিবনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজী কামাল হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন- খবর পেয়ে তিনি ধর্ষিতার বাড়িতে গিয়েছিলেন। তাদের পরিবারকে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিয়েছেন। তিনি আরো বলেন- মামলা করলে কুষ্টিয়া থানায় করতে হবে। সেক্ষেত্রে ধর্ষিতার পরিবারকে তিনি সব ধরণের সহযোগিতা করবেন। ধর্ষক শরিফুল ইসলাম ভবরপাড়া গ্রামের রহমান মোল্লা ওরফে ন্যাড়া মোল্লার ছেলে।

ধর্ষক শরিফুল ইসলাম ভবরপাড়া গ্রামের রহমান মোল্লা ওরফে ন্যাড়া মোল্লার ছেলে। তাকে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি।

1

 

Advertisment ad adsense adlogger