মেহেরপুরে ইজিবাইক ও বাসমালিক পক্ষের পাল্টাপাল্টি সড়ক অবরোধ ও ভাংচুর ।। সকল রুটে বাস চলাচল বন্ধ

জামাল নামের এক ইজিবাইক চালককে মারধরের প্রতিবাদে মেহেরপুর কুষ্টিয়া সড়কের ওয়াপদা মোড় এলাকায় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে ইজিবাইক চালকরা। এ ঘটনায় মঙ্গলবার সকাল ১০ টা থেকে মেহেরপুর-কুষ্টিয়া সড়কে বাস চলাচল বন্ধ থাকে। খবর পেয়ে মেহেরপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আহমার উজ্জামানের নেতৃত্বে সদর থানা পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখে।সমস্যা নিরসনে মেহেরপুর ওয়াপদা মোড়ে জেলা ইজিবাইক মালিক ও চালক সমিতির নেতৃবৃন্দের সাথে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বৈঠক করেছেন। বৈঠকে অন্যান্যদের মধ্যে ইজিবাইক মালিক ও চালক সমিতির সভাপতি সাজ্জাদুল আনাম, সাধারণ সম্পাদক আল মামুন, সদর থানার ওসি আহসান হাবিবসহ ইজিবাইক সমিতির নেতৃবন্দরা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠক শেষে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সন্ধ্যার মধ্যে সমাধানের আশ্বাস দেন এবং লাঞ্চিত ইজিবাইক চালককে থানায় অভিযোগ করতে বলেন। অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে ইজিবাইক চালকরা অবরোধ প্রত্যাহার করে নেই।এদিকে, এ ঘটনার পরপরই বাসমালিকের পক্ষে শ্রমিকরা ক্ষব্ধ বাসস্ট্যান্ডে পাল্টা অবরোধ শুরু করে। এ সময় মেহেরপুর পুলিশ সুপার গাড়ি সেখানে আটকা পড়ে। পরে পুলিশ সুপার নেমে অবরোধকারীদের সাথে কথা বললে পুলিশ সুপারের গাড়ি ছেড়ে দিয়ে তাদের কর্মসূচী চালাতে থাকে। এর পরে তারা শহরের বাসস্ট্যান্ড থেকে কোর্ট সড়কে হামলা চালিয়ে বেশকিছু ইজিবাইক ভাংচুর করেছে।পরে বাসচলাচল শুরু হলে কলেজ মোড়ের কাছে পাল্টা একটি বাস ভাংচুর করে ইজবাইকরা চালকরা এমন অভিযোগ বাসমালিক সমিতির। তার পর থেকে আবারো বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে।ইজি বাইক মালিক ও চালক সমিতির সভাপতি সাজ্জাদুল আলম বলেন, ইজিবাইক চালক জামাল মেহেরপুর থেকে যাত্রী নিয়ে বামনপাড়া দিকে যাচ্ছিল। এসময় পন্ডের ঘাটরে কাছে পৌছালে বাস মালিক মেগা তাকে মারধর করে। এ ইজিবাইকরা চালকরা এর প্রতিবাদে ওয়াপদা ও আমঝুপিতে শান্তিপূর্র্ণ সড়ক অবরোধ করে রেখেছিলো । পরে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সন্ধ্যার মধ্যে অভিযুক্ত ব্যাক্তিকে গ্রেফতার ও চলমান সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিলে অবরোধ প্রত্যাহার করা হয়েছে বলে তিনি জানান।মেহেরপুর সদর থানার ওসি আহসান হাবিব জানান, ইজিবাইক চালকদের সাথে কথা বললে তাদের অবরোধ তারা প্রত্যাহার করে নিয়েছে। এখন বাসমালিকরা মনে করলে বাস চালাতে পারবে। তবে ইজি বাইক ভাংচুরের ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে তিনি জানান, অভিযোগ করলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।জেলা বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব গোলাম রসুল বলেন, পুলিশ সুপারের আশ্বাসে আমরা একটি বাস কুষ্টিয়া রোডে চালানোর জন্য পাঠাই। বাসটি কলেজমোড়ে পৌছালে ইজিবাইক চালকরা বাসটি ভাংচুর করে। ফলে এর সমাধান না হওয়া পর্যন্ত সকল রুটে বাস চলাচল বন্ধ থাকবে ।meherpur

2015-09-01T16:19:29+00:00September 1st, 2015|মেহেরপুর|
Advertisment ad adsense adlogger