কুষ্টিয়া নিউজ ডেস্ক ॥ রাজধানীর পল্লবী থানার কালশী এলাকায় পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে দুই যুবক নিহত হয়েছেন। পুলিশের দাবি, গতকাল মঙ্গলবার ভোররাতে অস্ত্র উদ্ধারে অভিযান চলাকালে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় পুলিশের দুই সদস্যও আহত হন।
মহানগর পুলিশের মিডিয়া সেন্টারে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্স ন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট সিটি শাখার প্রধান মনিরুল ইসলাম এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান।
নিহত দুই যুবক হলেন তারেক হোসেন মিলু ওরফে ওসমান ও সুলতান মাহমুদ। এর মধ্যে তারেক রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক রেজাউল করিম সিদ্দিকী হত্যার ঘটনায় জড়িত ছিলেন বলে পুলিশের দাবি।
সংবাদ ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, নিহত দুজন জেএমবি সদস্য ছিলেন। তাঁরা উত্তরাঞ্চলে সংগঠিত বেশ কয়েকটি জঙ্গি হামলায় সম্পৃক্ত ছিলেন। এর মধ্যে তারেক উত্তরাঞ্চল জেএমবির উচ্চপর্যায়ের নেতা ছিলেন। অধ্যাপক রেজাউল করিম হত্যা মামলায় যাঁরা স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন, তাঁদের বক্তব্যে তারেকের নাম এসেছে। পুলিশের ধারণা, ঢাকায় কোনো বড় ধরনের নাশকতার পরিকল্পনা নিয়ে তাঁরা এসেছিলেন।
ব্রিফিংয়ের আগে পল্লবী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আশরাফ বলেছিলেন, মঙ্গলবার ভোররাত চারটার দিকে পল্লবীর কালশী রোডে লোহার ব্রিজের পাশে দুজনের লাশ পড়ে ছিল। এর আগে ওই এলাকায় অস্ত্র উদ্ধার অভিযান চালান ডিবির সদস্যরা। সেখানে আগে থেকে চার-পাঁচজন সন্ত্রাসী অবস্থান করছিল। ডিবির উপস্থিতি টের পেয়ে তারা হামলা চালায়। পুলিশও পাল্টা হামলা চালায়। এ ঘটনায় দুজন মারা যায়। অন্যরা পালিয়ে গেছে। লাশ দুটি ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে।