শখ ছিল অজগর পোষা। তাই যত্ন করে সাপটিকে আগলে রাখতেন ড্যান ব্র্যান্ডন। কে জানতো পোষা সেই সাপই কাল হয়ে দাঁড়াবে ব্রিটিশ এ যুবকের জন্য? অবশেষে যা ঘটলো, তা শুনলে গা শিউরে ওঠে। নিজের পোষা সাপই গিলে খেলো ব্র্যান্ডনকে। জানা যায়, সাপের প্রতি ভালোবাসা থেকেই সাপের কল্যাণে অর্থ সংগ্রহ করার উদ্যোগও নিয়েছিলেন ব্র্যান্ডন। সাপগুলোর মধ্যে আফ্রিকান রক পাইথন (অজগর) তার বেশ প্রিয় ছিল। সম্প্রতি দক্ষিণ ইংল্যান্ডের চার্চ ক্রুকহ্যামে তার নিজের বাসায় আট ফিট লম্বা ওই অজগরের পাশেই মিলল ব্র্যান্ডনের লাশ। দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী জানায়, তিনি সাপকে যে কক্ষে রাখতেন, সেখানেই তার লাশ পাওয়া যায়। লক্ষণ দেখে প্রাথমিকভাবে তাকে শ্বাসরোধে হত্যার প্রমাণ পাওয়া গেছে। এক্ষেত্রে তার পোষা অজগর গলা জড়িয়ে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করেছে কি না, তা এখনো তদন্তাধীন। দেশটির পুলিশ জানায়, যুক্তরাজ্যে এমনভাবে হত্যার ঘটনা আগে ঘটেনি। আর এ বিষয়টি যদি সত্যিই হয়ে থাকে, তাহলে তা হবে দেশটিতে প্রথম ঘটনা। তবে ব্র্যান্ডন সাপ পোষার ক্ষেত্রে বহুদিনের অভিজ্ঞ ছিলেন। তার বিশাল বার্মিজ প্রজাতির অজগরসহ বহু ধরনের সাপ ছিল। আরও জানা যায়, ওয়ার্ল্ড ওয়াইল্ডলাইফ ফান্ডের জন্য অর্থ সংগ্রহের উদ্দেশ্যে একটি পাতাও তৈরি করেছিলেন। এখন তার অর্থ সংগ্রহের বিষয়টিও অনিশ্চিত।