কুষ্টিয়া সদর উপজেলার মনোহরদিয়া ইউনিয়ন এর সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান তালুকদার দলীয় মনোনয়নে নির্বাচিত হয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এলাকাবাসীর উন্নয়ন অব্যাহত রাখার প্রত্যাশা

মাহমুদ হাসান ॥ কুষ্টিয়া সদর উপজেলার মনোহরদিয়া ইউনিয়নের আসন্ন ইউপি নির্বাচনে এবারের সবচেয়ে আলোচিত ও প্রিয়মুখ কুষ্টিয়া সদর থানা আওয়ামীলীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক জননন্দিত সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান তালুকদার। বর্তমান চেয়ারম্যান’র নানামুখি ব্যার্থতা ও জনগনের পাশে না থাকায় এবং ইউনিয়নকে বাসীকে অবহেলিত ও উন্নয়ন বঞ্চিত করায় এবারে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে সবচেয়ে আলোচিত ব্যাক্তি হান্নান তালুকদার। পারিবারিকভাবে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক। প্রতিটি গণতান্ত্রিক আন্দোলন সংগ্রামে তিনি ছিলেন রাজপথের অগ্রসৈনিক। তিন বার নির্বাচিত চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী তালুকদার ও প্রভাষক ধীর আলী তালুকদার এর উত্তরসুরী। সম্প্রতি ইউপি নির্বাচনে প্রার্থীতা ও এলাকার উন্নয়ন নিয়ে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি জানান, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃতে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে অব্যাহত উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছে। স্বাধীনতার চারদশকে যে উন্নয়ন কুষ্টিয়া জেলায় হয়নি, বর্তমান সরকারের অব্যাহত উন্নয়নের কারনে কুষ্টিয়াবাসীর দীর্ঘদিনের লালিত সে স্বপ্ন পুরন হয়েছে। এসব কিছুই সম্ভব হয়েছে কুষ্টিয়ার উন্নয়নের রুপকার বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক প্রধানমন্ত্রীর আস্থাভাজন ব্যাক্তি জননেতা মাহবুবউল হানিফের চেষ্টায়। মনোহরদিয়া ইউনিয়ন একটি অবহেলিত ও উন্নয়ন বঞ্চিত ইউনিয়ন। এই ইউনিয়নের উন্নয়নে জননেতা মাহবুব উল আলম হানিফ এর ছোয়ায় অনেক উন্নয়ন হয়েছে এবং পক্রিয়াধীন রয়েছে। দলীয় চেয়ারম্যান না থাকায় অনকে উন্নয়ন বাধা গ্রস্থ হয়েছে। সারা দেশের মত আগামী দিনে সরকারের উন্নয়ন এর ধারা অব্যাহত রাখতে এবং এই অবহেলিত এলাকার মানুষের উন্নয়ন ও শান্তি ফিরিয়ে আনতে নৌকা মার্কার বিজয়ের বিকল্প নেই। তিনি আরো জানান, পারিবারিকভাবে আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত হওয়া থেকে শুরু করে চেয়ারম্যান থাকা কালীন এবং বর্তমানে তিনি একনিষ্টভাবে আওয়ামীলীগের সকল কর্মসূচী সফল ভাবে পালন করে আসছেন। তিনি আসন্ন ইউপি নির্বাচনে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সকল ওয়ার্ড এর সভাপতি, সাধারন সম্পাদক, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, কৃষকলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, শ্রমিকলীগসহ সকল আওয়ামীলীগের নেতাকর্মী এবং সাধারন ভোটারদের সমর্থনে এবারের ইউপি নির্বাচনে আওয়ামীলীগের দলীয় মনোয়নের প্রত্যাশা করছেন। আব্দুল হান্নান তালুকদার র্দীর্ঘদিন ইউনিয়ন এর চেয়ারম্যান থাকায় জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন। কুষ্টিয়া সদও থানা অওয়ামীলীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল হান্নান তালুকদার ১৯৯৮ সালে বর্তমান সরকার ক্ষমতায় থাকাকালে জামাত এর প্রার্থী আমিরুল ইসলামকে বিপুল ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ইউনিয়নবাসীর অত্যন্তকাছের জন পরোপকারী ব্যক্তি জনপ্রিয়তায় শীর্ষে থাকায় পূনরায় বিপুল ভোটের ব্যবধানে ২০০৩ সালে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। পরপর দুইবার চেয়ারম্যান থাকাকালে তিনি যে সকল উন্নয়ন কর্মকান্ড করেছেন তা সাংবাদিকদের কাছে তুলে ধরে বলেন, কর্ন্দপদিয়া হতে হাতিভাঙা, রাধানগর হতে চর রাধানগর এবং মনোহরদিয়া বাজার হতে গঙ্গাবরকান্দি মোট ৯কিলোঃ মিটার এলাকায় বিদ্যুতায়নের মাধ্যমে অন্ধকার সমাজে আলো ছড়িয়েছেন। চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর আব্দুল হান্নান তালুকদার কখনও বসে থাকেননি। অবহেলিত, উন্নয়নবঞ্চিত মনোহরদিয়া ইউনিয়নের সার্বিক কল্যাণে নিরলসভাবে কাজ করেছেন। ৯ কিলোমিটার পল্লী বিদ্যুতায়ন করেন। সরকারের নামে ব্যক্তিগত সম্পত্তি রেজিষ্ট্রি করে সেখানে বিরাট বাজার প্রতিষ্ঠা করার মধ্য দিয়ে এলাকার মানুষের নতুন নতুন কর্মসংস্থান, ব্যবসা-বাণিজ্যসহ প্রত্যন্ত গ্রামে বাজার অর্থনীতির চাকা সচল করেছেন। বর্তমানে মনোহরদিয়া বাজার বলে পরিচিত। যেখানে শত শত মানুষ ব্যবসা-বাণিজ্য করে তাদের রুটি-রুজির জীবিকা নির্বাহ করছে। ইউপির অধিনে প্রতিষ্ঠিত যতগুলো সরকারী বেসরকারী প্রতিষ্ঠান রয়েছে অধিকাংশ তাদের জমির উপর নির্মিত যেমন, মনোহরদিয়া ইউপি ভবন, মনোহরদিয়া বাজার, মসজিদ, পুলিশক্যাম্প, ভুমি অফিস, স্বাস্থ্য কেন্দ্র্র। এলাকায় শিক্ষার আলো ছড়াতে নিজেদের জায়গার উপর প্রতিষ্ঠা করেছেন কর্ন্দরপদিয়া মাধ্যমিক ও প্রাথমিক বিদ্যালয়। চেয়ারম্যান থাকাকালে এলাকার অসহায় মানুষের স্বাস্থ্যসেবার জন্য ৩টি কমিউনিটি ক্লিনিক ও রাধানগর মাধ্যমিক বিদ্যালয় নিজ জমিসহ এলাকাবাসির থেকে বিনা মুল্যে জায়গা নিয়ে প্রতিষ্ঠা করেছেন। এছাড়াও ইউনিয়নের প্রায় মসজিদে সরকারী ও ব্যাক্তিগত অনুদান প্রদান করেন, পাকা স্যানিটেশন ব্যবস্থা, এলাকায় একের পর এক টিউবয়েল স্থাপনের মধ্য দিয়ে বিশুদ্ধ পানির ব্যবস্থা করেন। এছাড়া বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা, প্রতিবন্ধীভাতা, মুক্তিযোদ্ধা ভাতা, ভিজিএফ, ভিজিডিসহ সকল সরকারী অনুদান সুষ্ঠুভাবে বন্টন করেন ভুক্তভোগীদের মাঝে। বিল খননের মাধ্যমে এলাকায় একদিকে যেমন মাছের চাহিদা পূরণ করেছেন অন্যদিকে বেকার ও কর্মহীনদের নিয়ে সমিতি গঠনের মাধ্যমে তাদের অর্থনৈতিক বুনিয়াদ প্রতিষ্ঠা করেছেন। ইউনিয়নের একটি বড় এলাকা যেখানে অতি বৃষ্টি ও বন্যার পানি নিষ্কাষনের কোন ব্যবস্থা ছিল না। একটু বৃষ্টিতেই পানিবন্দি হয়ে পড়তো মানুষ। চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান তালুকদার নিজ উদ্যোগে কর্ন্দপদিয়া থেকে হাতিভাঙা কুমারনদী পর্যন্ত ৪ কিলোমিটার, ফকিরপাড়া থেকে ছয়ঘড়িয়া হয়ে কুমারনদী পর্যন্ত পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করেন। হাতিভাঙা হতে মনোহরদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ পর্যন্ত এইচবিবি পাকা সড়ক নির্মাণ, মনোহরদিয়া হতে গঙ্গাবরকান্দি পর্যন্ত ৩কিলোঃ, মনোহরদিয়াবাজার হতে আশাননগর পর্যন্ত ২ কিলোঃ, কর্ন্দপদিয়া হতে ছয়ঘড়িয়া পর্যন্ত ৫ কিলোঃ, নৃ-সিংহপুর হতে বলরামপুর ব্রীজ পর্যন্ত ৫ কিলোমিটর কাচা রাস্তা পাকা করন করেন, এছাড়া রাধারনগর হতে আশাননগর, রাধানগর হাইস্কুল হতে চরপাড়া হয়ে বলরামপুর, কর্ন্দরপদিয়া হতে হাতিভাঙা মাঠ পর্যন্ত নতুন রাস্তা তৈরি করেন, যার কারনে এলাকার মানুষের যোগাযোগ ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। কর্ন্দরপদিয়া রাস্তার উপর এবং রাধারনগর ও আশাননগর কুমার নদীর উপর ব্রীজ নির্মাণের মাধ্যমে এলাকার মানুষের যোগাযোগ ব্যবস্থায় আধুনিকায়ন করেন। বন্যার্তদের মাঝে খাদ্য ও ত্রান সামগ্রী বিতরণ করে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ান সকল সময়। এছাড়া ও তিনি ঈদগাহ’র ও গোরস্থান এর উন্নয়নের কাবিখা কাবিটা এবং টিআর অনুদান দিয়েছেন। তিনি পূনরায় চেযারম্যান নির্বাচিত হয়ে একালাবাসীকে সাথে নিয়ে, সন্ত্রাস মাদকমুক্ত করে মনোহরদিয়া ইউনিয়নকে একটি মডেল ইউনিয়ন হিসেবে উপহার দিতে চান। তিনি প্রত্যাশা করেন, বর্তমান সরকারের উন্নয়ন ধরে রাখতে জননেত্রী শেখ হাসিনা ও জননেতা মাহবুব উল আলম হানিফের হাত শক্তি শালী করতে দলীয় মনোনয়ন পেলে নৌকা প্রতীকে সুনিশ্চিত বিজয়ী হবেন। আব্দুল হান্নান তালুকদার বলেন, বর্তমান সময়ে সরকারের সিদ্ধান্ত মোতাবেক দলীয় প্রতীকে ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তাই অনেকে দলীয় মনোয়ন প্রত্যাশা করছে। তিনি প্রার্থীতা চুরান্ত করতে জেলা আওয়ামীলীগসহ আওয়ামীলীগের নীতি নির্ধারকদের তৃনমুলের জনপ্রিয়তা যাচাই বাছাই করার অনুরোধ করেন। এবং তাকে আসন্ন ইউপি নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন দিয়ে প্রতিদন্দীতা করা সুযোগ দানের প্রত্যয় ব্যাক্ত করেন।

Advertisment ad adsense adlogger