৩ শতাধিক নেতাকর্মী নিয়ে দৌলতপুরের রিফাইতপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ইছাহক আলীর আওয়ামীলীগে যোগদান

খালিদ হাসান রিংকু
কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার ৯নং রিফাইতপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও বিএনপি নেতা ইছাহক আলী ৩ শতাধিক নেতাকর্মী নিয়ে বিএনপি থেকে আওয়ামীলীগে যোগদান করেছেন। আজ বৃহস্পতিবার সকালে কুষ্টিয়া-১ আসনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আ.ক.ম সরোয়ার জাহান বাদশার বাসভবনে উপস্থিত হয়ে বিএনপির নেতাকর্মীর নিয়ে বিএনপি ছেড়ে ইছাহক আলীসহ প্রায় ৩ শতাধিক নেতাকর্মী আওয়ামীলীগে যোগদান করেন।

রিফাইতপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ও রিফাইতপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ইছাহক আলী এই প্রতিবেদককে জানান, আমরা রাজনীতি করি সাধারণ মানুষের কল্যানে। সাধারণ মানুষ আমাদের দিকে চেয়ে থাকে ভাল কিছু প্রত্যাশার জন্য। আমি দীর্ঘদিন ধরে বিএনপির রাজনীতির সাথে যুক্ত থেকে দেখেছি সাধারণ মানুষের প্রত্যাশা পূরন করতে পারিনি। বর্তমান সরকারের আমলে বিগত ১০ বছর ধরে দৌলতপুর তথা কুষ্টিয়া জেলা ও সারা বাংলাদেশে যে পরিমান উন্নয়ন হয়েছে স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে এতো উন্নয়ন কোন সরকার করতে পারেনি। বর্তমান সরকার সাধারণ মানুষের জীবন মানের ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতেই মূলত বিএনপি থেকে আওয়ামীলীগে যোগদান বলে তিনি জানান। ইছাহক আলী জানান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অসাধ্যকে সাধন করে দেখিয়েছেন। এদশের সাধারণ মানুষের জীবন মানের উন্নয়ন, দেশের উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করতে আওয়ামীলীগ সরকারের কোন বিকল্প নেই বলেই অভিমত প্রকাশ করেন।

কুষ্টিয়া-১ আসনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আ.ক.ম সরোয়ার জাহান বাদশার হাত নৌকা তুলে দিয়ে আওয়ামীলীগে যোগদান করছেন ইছাহক আলীসহ বিএনপির প্রায় ৩ শতাধিক নেতাকর্মী

যোগদান অনুষ্ঠানে আওয়াীলীগ এর মনোনীত প্রার্থী আ.ক.ম সরোওয়ার জাহান বাদশা বিএনপির নেতাকর্মীদে উদ্দেশ্যে বলেন, দীর্ঘদিন যাবত আপনারা বিএনপির রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। আপনারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সু-যোগ্য কন্যা জননেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে আওয়ামী লীগে যোগদানের জন্য দীর্ঘদিন যাবত আমাদের নেতাকর্মীর সাথে যোগাযোগ চালিয়ে আসছেন। আপনারা উন্নয়নের পক্ষে থেকে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করনের লক্ষ্যে যে মহৎ সিধান্ত নিয়েছেন এতে আমরা আপনাদের স্বাগত জানায়। আপনারা আমাদের দলীয় নেতাকর্মীর সাথে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করবেন। জননেত্রী শেখ হাসিনা আবারও দেশ ক্ষমতায় আসবেন, এবং আমাদের প্রিয় এই দেশ শেখ হাসিনার হাত ধরেই ক্ষূধা ও দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ হয়ে গড়ে ইঠবে ইনশাল্লাহ।

বিএনপির নেতাকর্মীদের আওয়ামীলীগে যোগদান বিষয়টি নিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কৃষি ও সমবায় উপ-কমিটির সদস্য ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ইঞ্জিনিয়ার সাকীল খান জানান, জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের উন্নয়ন আজ সর্বশ্রেণী পেশার মানুষের দৃষ্টিতে সুস্পষ্ট। মানুষ এখন উন্নয়নের পক্ষে। বর্তমান সরকারের গত ১০ বছরে মানুষের জীবন মানের ব্যাপক উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। এই উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করতে সর্বশ্রেণী পেশার মানুষ আজ নৌকার পক্ষে সমর্থন দিচ্ছে। তিনি বলেন, এই যোগদান আনুষ্ঠানিকতা মাত্র। অনেক বিএনপি নেতাকর্মী এখন অঅওয়ামীলীগের উন্নয়নের পক্ষে সমর্থন দিয়ে তারা নিজেরাও সাধারণ মানুষের কাছে নৌকা প্রতীকে ভোট চেয়ে গনসংযোগ করছেন। আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বিপুল ভোটে জয় লাভ করবে। যোগদান অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ৯নং রিফাইতপুর ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান জামিরুল ইসলাম বাব, রিফাইতপুর ইউনিয়ন পরিষদের নং ৫ ওয়ার্ড এর সদস্যজাহাঙ্গীর আলম, ঝুমর আলী, মারু আহম্মেদ, কুমর আলী, গেদা মন্ডল, বিচ্ছেদ আলীসহ আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।