এবারই প্রথমবার ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে উঠে এসছে শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাব। প্লেয়ার্স ড্রাফটে লটারি ভাগ্যেও প্রথম ডাকের সুযোগ এলো দলটির। প্রথম সুযোগেই নবাগত দলটি ডেকে নিল বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাকে। গতকাল হওয়া এবারের ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের প্লেয়ার্স ড্রাফটে। ড্রাফটের প্রথম রাউন্ডে তৃতীয় ডাকের সুযোগ পেয়ে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ বেছে নিয়েছে মুশফিকুর রহিমকে। পঞ্চম ডাকের সুযোগ পেয়ে সাকিব আল হাসানকে নিয়েছে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। প্রথম রাউন্ডে দশম ডাকের সুযোগ পেয়ে মাহমুদউল্লাহকে নিয়েছে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব। প্রথম রাউন্ডে কোনো দলই নেয়নি তামিম ইকবালকে। দ্বিতীয় রাউন্ডে তাকে নিয়েছে কলাবাগান ক্রীড়া চক্র। প্রথম রাউন্ডে দ্বিতীয় ডাকের সুযোগে কলাবাগান নিয়েছে তাইবুর পারভেজকে। চতুর্থ ডাকের সুযোগ পেয়ে প্রিমিয়ারে নবাগত অগ্রণী ব্যাংক নিয়েছে পেসার আল আমিন হেসেনকে। নাসির হোসেনকে নিয়েছে আবাহনী লিমিটেড। ব্রাদার্স ইউনিয়ন নিয়েছে ইয়াসির আলি চৌধুরী রাব্বিকে। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন গাজী  ক্রিকেটার্স লটারিতে ছিল ৯ নম্বরে। তারা দলে নিয়েছে ইমরুল কায়েসকে। প্রাইম দোলেশ্বর প্রথম রাউন্ডে নিয়েছে লিটন দাসকে, দ্বিতীয় রাউন্ডে মুস্তাফিজুর রহমানকে। প্রথম রাউন্ডে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব নিয়েছে বাঁহাতি স্পিনার নাজমুল ইসলাম অপুকে, খেলাঘর সমাজ কল্যাণ সমিতির প্রথম পছন্দ এনামুল হক। বাংলাদেশের ওয়ানডে দল থেকে বাদ পড়া তাসকিন আহমেদকে নিয়েছে আবাহনী। দলটি নিয়েছে মেহেদী হাসান মিরাজকেও। পেসার রুবেল হোসেন খেলবেন প্রাইম ব্যাংকে, শেখ জামালে আবু জায়েদ চৌধুরী। তবে প্লেয়ার্স ড্রাফটে পাওয়া দলই চূড়ান্ত নয়। দুই ক্লাব চাইলে নিজেদের মধ্যে সমঝোতা করে বদল করতে পারে কোনো ক্রিকেটারকে। মাশরাফি ও এনামুলের প্রতি আবাহনীর তুমুল আগ্রহের কথা যেমন শোনা যাচ্ছে।