মেলবোর্নে আজ ফাইনালে ওঠার লড়াই

সেরেনা উইলিয়ামস-ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কারা অংশগ্রহণ করেননি। ভেনাস-মুগুরুজা, রাদওয়ানস্কা-কেভিতোভা কিংবা শারাপোভা-সিতলিনারাও বিদায় নিয়েছেন আরও আগেই। তারপরও এবারের অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের গ্ল্যামার কমেনি এতটুকু। বরং আজ টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালেও দেখা যাবে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। মৌসুমের প্রথম গ্র্যান্ডস্লাম টুর্নামেন্টের শেষ চারে বর্তমান বিশ্বের এক নাম্বার খেলোয়াড় সিমোনা হ্যালেপের মুখোমুখি হবেন দুর্দান্ত ফর্মে থাকা এ্যাঞ্জেলিক কারবার। অন্য সেমিফাইনালে বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের সাবেক নাম্বার ওয়ান তারকা ক্যারোলিন ওজনিয়াকি মুখোমুখি হবেন এই আসরের চমক বেলজিয়ামের এলিস মার্টেন্স। গত মৌসুমটা দারুণ কেটেছে সিমোনা হ্যালেপের। পারফর্মেন্সের সেই ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছেন এবারও। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের শুরু থেকেই দুর্দান্ত খেলছেন এবার। বুধবার কোয়ার্টার ফাইনালেও দেখা যায় তার দাপট। রোড লেভার এ্যারেনায় এদিন রোমানিয়ার এই টেনিস তারকা ৬-৩ এবং ৬-২ গেমে পরাজিত করেন চেক প্রজাতন্ত্রের ক্যারোলিনা পিসকোভাকে। প্রতিপক্ষকে হারাতে এদিন তার সময় লাগে মাত্র ১ ঘণ্টা ১১ মিনিট। সেই সঙ্গে প্রথমবারের মতো টুর্নামেন্টের শেষ চারের টিকেট নিশ্চিত করেন তিনি। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের সেমিফাইনালে জায়গা করে নিয়ে দারুণ রোমাঞ্চিত হ্যালেপ। এ প্রসঙ্গে নিজের অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘সেমিফাইনালে জায়গা করে নেয়ার আনন্দটা সত্যিই অন্যরকম। তবে এটা নিশ্চিত করে বলতে পারি যে, শুরুটা ঠিক নিজের মতো করে হয়নি। তবে শুরুটা ভাল না হলেও স্বরূপে ফিরতে খুব সময় লাগেনি আমার। চেষ্টা করেছি নিজের স্টাইলেই খেলতে। সার্ভও খুব ভাল করেছি আজ। বলতে পারেন সবকিছুই আমার পক্ষেই গেছে।’ তবে শীর্ষ বাছাই হ্যালেপের আসল পরীক্ষাটাই এখনও বাকি। কেননা, শেষ চারেই যে তার প্রতিপক্ষ হিসেবে কোর্টে নামবেন এ্যাঞ্জেলিক কারবার। ২০১৬ সালে এই টুর্নামেন্টের চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন তিনি। সে বছরই প্রথমবারের মতো বিশ্ব টেনিসের পাদপ্রদীপের আলোয় উঠে এসেছেন জার্মানির এই টেনিস তারকা। মৌসুমের প্রথম মেজর টুর্নামেন্ট ছাড়াও চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন ইউএস ওপেনে। সেই সঙ্গে বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষস্থানও দখল করে নিয়েছিলেন স্টেফিগ্রাফের এই উত্তরসূরি। কিন্তু গত বছরটা খুব বাজে কাটে তার। মেজর গ্র্যান্ডস্লাম জয় তো দূরের কথা কোন ডব্লিউটিএ শিরোপাই নিজের শোকেসে তুলতে পারেননি তিনি। অথচ নতুন মৌসুমের শুরু থেকেই অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগোচ্ছেন এই জার্মান তারকা। হপম্যান কাপে দুর্দান্ত খেলার পর সিডনি ইন্টারন্যাশনাল টেনিস টুর্নামেন্টেও চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন তিনি। মেলবোর্নের কোয়ার্টার ফাইনালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মেডিসন কেইসকে পরাজিত করে শেষ চারের টিকেট কাটেন তিনি। বুধবার শেষ আটের লড়াইয়ে কারবার ৬-১ এবং ৬-২ গেমে হারান গত বছর ইউএস ওপেনের ফাইনাল খেলা মেডিসন কেইসকে। এই জয়ের পর কারবার বলেন, ‘২০১৬ সালে যে অনুভূতিটা ছিল আমার সেটাই খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা করেছি। মেডিসন হার্ড-হিটার খেলোয়াড়। দুর্দান্ত সার্ভ করে সে। যে কারণেই তার বিপক্ষে আমার পরিকল্পনা ছিল শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক খেলা।’ এদিকে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে পারফর্মেন্সের ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছেন ক্যারোলিন ওজনিয়াকিও। গত বছর আট টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা ড্যানিশ টেনিস তারকা এবার কোয়ার্টার ফাইনালে ৬-০, ৭-৬ এবং ৬-২ গেমে পরাজিত করেন স্পেনের কার্লা সুয়ারেজ নাভারোকে। শেষ চারে প্রতিপক্ষ হিসেবে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা এলিস মার্টেন্সকে পাচ্ছেন তিনি। ২২ বছর বয়াসী এই টেনিস তারকা এবার দুর্দান্ত খেলছেন। মৌসুমের শুরুতেই হপম্যান কাপে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেন তিনি। এরপর শেষ চারে জায়গা করে নেন অস্ট্রেলিয়ান ওপেনেও। তবে ড্যানিশ টেনিস তারকার জন্য সুখবর হলো, এর আগে একবার মুখোমুখি হয়েছিলেন মার্টেন্সের। গত জুলাইয়ের ক্লে কোর্টের সেই লড়াইয়ে অবশ্য জয়ের স্বাদও পেয়েছিলেন ক্যারোলিন ওজনিয়াকি।

 

2018-01-25T07:48:10+00:00January 25th, 2018|খেলাধুলা|
Advertisment ad adsense adlogger