সাত দিনেই বরখাস্ত রোবট কর্মী!

যুক্তরাজ্যের একটি দোকান থেকে রোবট কর্মীকে বরখাস্ত করার ঘটনা ঘটেছে। চলতি সপ্তাহে এ ঘটনা ঘটেছে। মাত্র সাত দিন কাজের পরই ফ্যাবিও নামের ওই রোবটকে কাজ সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। পিটিআইয়ের খবরে বলা হয়েছে, হেরিয়ট-ওয়াট ইউনিভার্সিটির গবেষকেরা ফ্যাবিওকে তৈরি করেছিলেন। গত সপ্তাহে মারজোয়াত্তা স্টোর নামের এডিনবার্গের স্থানীয় একটি দোকানে কাজ শুরু করে ফ্যাবিও। এ ঘটনা নিয়ে সংবাদমাধ্যম বিবিসি একটি ভিডিও প্রতিবেদনও প্রচার করেছিল। প্রথম দিকে ফ্যাবিও ওই দোকানে আসা মক্কেলদের স্বাগত জানাত। একই সঙ্গে বিভিন্ন পণ্য সম্পর্কে মক্কেলদের বিভিন্ন তথ্যও দিত ফ্যাবিও। রোবটটির সফটওয়্যার ইন্টারনেটের সঙ্গে সংযুক্ত থাকত। ফলে গ্রাহকদের যেকোনো প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য বিভিন্ন তথ্য সরবরাহ করতে পারত ফ্যাবিও। ওই দোকানের ব্যবস্থাপক লুইসা মারজোয়াত্তা বলেন, ‘রোবটটির চলাফেরায় সীমাবদ্ধতা ছিল। এটি পুরো দোকানে ঘুরতে পারত না এবং গ্রাহকদের কোনো নির্দিষ্ট পণ্য কোথায় আছে তা দেখিয়ে দিতে পারত না। দুর্ভাগ্যক্রমে আমরা যে রকম আশা করেছিলাম, ফ্যাবিও সে রকম নৈপুণ্য দেখাতে পারেনি। মানুষ আসলে ফ্যাবিওকে এড়িয়ে যাওয়া শুরু করেছিল।’ হেরিয়ট-ওয়াট ইউনিভার্সিটির ইন্টার‍্যাকশন ল্যাবের পরিচালক অলিভার লেমন বলেন, ‘ফ্যাবিওকে ভালোবেসে ফেলেছিল ওই দোকানের অন্য কর্মীরা। আমরা যখন ফ্যাবিওকে বাক্সবন্দী করছিলাম, কর্মীদের একজন কাঁদছিলেন। কারণ, তাঁরা রোবটের সঙ্গে নিজেদের মানিয়ে নিয়েছিলেন।’অলিভার লেমন আরও জানান, ফ্যাবিও ছিল একটি প্রোটোটাইপ রোবট। আগামী দুই বছরের মধ্যে তাঁর দল এমন একটি রোবট তৈরি করবে, যা শপিং সেন্টারে কাজ করার জন্য সম্পূর্ণ উপযুক্ত হবে। তিনি বলেন, ‘সেই রোবটটি মানুষকে বিভিন্ন পণ্য খুঁজে পেতে সাহায্য করবে। ওই একই প্রযুক্তি ব্যবহার করে বিমানবন্দর ও হাসপাতালের জন্যও রোবট তৈরি করা যাবে।’ তবে, এই গবেষক দল জানিয়ে দিয়েছে, রোবট কখনোই মানুষের পরিপূরক হবে না। কারণ, মানুষের মতো বিচার করার ক্ষমতা রোবটের পক্ষে অর্জন করা সম্ভব নয়। তবে মানুষের কিছু কাজ করতে পারবে রোবট।

 

2018-01-26T06:07:52+00:00January 26th, 2018|তথ্য প্রযুক্তি|
Advertisment ad adsense adlogger