প্রিপেইড সংযোগের মোবাইলের গ্রাহকেরা এখন থেকে এক দিনে ৫০০ টাকার বেশি রিচার্জ করতে পারবেন না। আজ মঙ্গলবার বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) এক নির্দেশনায় এ কথা জানানো হয়েছে। নতুন এই নির্দেশনা অবিলম্বে কার্যকর করতে দেশের মোবাইল অপারেটরকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

পোস্ট পেইড গ্রাহকদের ক্ষেত্রে এ নির্দেশনা প্রযোজ্য হবে না বলেও ওই নির্দেশনায় উল্লেখ করা হয়েছে। বিটিআরসির সিস্টেমস অ্যান্ড সার্ভিসেস বিভাগ থেকে দেওয়া নতুন এ নির্দেশনায় বলা হয়েছে, একজন প্রিপেইড গ্রাহক তাঁর মোবাইল ফোনে সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকার ব্যালেন্স রাখতে পারবেন। আর এক দিনে সর্বোচ্চ ৫০০ টাকা রিচার্জ করতে পারবেন।
এই নির্দেশনায় আরও বলা হয়েছে, একটি প্রিপেইড সংযোগ থেকে মাসে সর্বোচ্চ এক হাজার টাকা ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা যাবে। আর এক দিনে সর্বোচ্চ ৩০০ টাকা ট্রান্সফার করা যাবে। এত দিন এক দিনে সর্বোচ্চ ১০০ টাকা ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা যেত।
এর আগে ২০০৮ সালে প্রিপেইড রিচার্জের ব্যাপারে নির্দেশনা দিয়েছিল বিটিআরসি। ওই নির্দেশনায় একবারে সর্বোচ্চ এক হাজার টাকা রিচার্জ করার নিয়ম থাকলেও প্রতিদিনের রিচার্জ সীমা নির্ধারণ করা ছিল না।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বিটিআরসির চেয়ারম্যান শাহজাহান মাহমুদ প্রথম আলোকে বলেন, ‘অবৈধ ভিওআইপি কমানোর উদ্দেশ্যে পরীক্ষামূলকভাবে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। অবৈধ ভিওআইপির কাজে যে সব সিম ব্যবহার হয় সেগুলোতে যাতে ইচ্ছেমতো রিচার্জ না করা যায়, সে কারণেই সর্বোচ্চ সীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছে।’
বিটিআরসি সূত্রে জানা গেছে, একের অধিক সিম বা মোবাইল সংযোগ ব্যবহারে গ্রাহকদের নিরুৎসাহিত করতেই এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। অনেক ব্যবহারকারী অল্প অল্প করে রিচার্জ করে বেশি সিম ব্যবহার করে থাকেন।
বিটিআরসির সর্বশেষ পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশে চালু থাকা মোট সিমের সংখ্যা ১৩ কোটি ৩১ লাখ ৬৩ হাজার। এর মধ্যে ৯৮ শতাংশ ব্যবহারকারীই প্রিপেইড সংযোগ ব্যবহার করেন।